সে’ক্স করার সময় যেসব শব্দ বাড়িয়ে দেবে আপনার সু’খ

0
24

স্ত্রী কিংবা গার্লফ্রেন্ড। কাছের মানুষটিকে চূড়ান্তভাবে কাছে পাওয়ার চেয়ে সু’খকর আর কী হতে পারে! ব্যবহারিক ভাষায় এক বাক্যে যাকে বলা হয় সে’ক্স বা যৌ’ন মি’লন। সবাই তো আর কাছের মানুষটিকেই বিছানায় নিয়ে সু’খ খুঁজেন না! টাকার বিনিময়ে কিংবা যেকোনো সুযোগেই হোক না’রী পুরু’ষের মি’লনের মধ্যেই যেন সু’খ খুঁজে বেড়ান। সেজন্য, সময়টাকে কীভাবে আরও বেশি সু’খকর করা যায় সেটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

সে’ক্স-এর সময় এমন কিছু শব্দ, এমন কিছু কথা আছে যাতে মি’লনের আ’নন্দ দ্বিগুণ হয়! আসে পরিপূর্ণতা! কিন্তু সেই সিক্রেট কোডগুলো কী কী যা আপনার পার্টনারকে বেশি আকর্ষণ করে?

‘সসি ডেটস’ নামের একটি অনলাইন এজেন্সি ৫০২৪ জন ইউজারের ও’পর একটি সমীক্ষা করেছে। তাঁদের জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, সে’ক্স-এর সময় তাঁরা কী ধরনের শব্দ বা কথা শুনতে ভালবাসেন?

৯০ শতাংশেরও বেশি পুরু’ষ জানান, হালকা গোঙানির শব্দই সে’ক্স-এর উ’ত্তেজনা বাড়িয়ে তোলে। তবে এক্ষেত্রে ম’হিলাদের সংখ্যাটা কম। ৭৭.৬ শতাংশ ম’হিলা তাঁদের পার্টনারের গোঙানি উপভোগ করেন।

৭৬.৮ শতাংশ পুরু’ষ আবার বলছেন, পার্টনারের থেকে ছোটখাটো দুষ্টুমির কথাবার্তা শুনলে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। ৭৩.৫ শতাংশ ম’হিলারও মত, দুষ্টু-মিষ্টি কথা পার্টনারের প্রতি আকর্ষণ বাড়িয়ে তোলে।

তবে শুধু কথাই নয়, গভীর-ভারী নিঃশ্বাস-প্রশ্বাসও মি’লনে বড় ভূমিকা পালন করে।

৬০.১ পুরু’ষ ও ৪৫.৯ শতাংশ ম’হিলাদের মত, কান বা ঠোঁ’টের মতো স্পর্শকাতর অ’ঙ্গে গভীর শ্বাস-প্রশ্বাস সে’ক্স- এর উ’ত্তেজনা দ্বিগুণ করে!

এছাড়াও ‘আ’নন্দের য’ন্ত্রণা’-র চি’ৎকার, ‘ওহ গড’-এর মতো শব্দগু’লিতে সে’ক্স আরও গভীর হয়!

তবে অনেক পুরু’ষ ও ম’হিলা এমনও বলছেন, সে’ক্স-এর সময় তাঁরা গভীর নিস্তব্ধতা পছন্দ করেন।

এ তো গেল, ‘ভালর কথা’! কিন্তু মি’লনের সময় কোন কথা শুনলে সবচেয়ে খা’রাপ লাগে জানেন? সমীক্ষা জানাচ্ছে, অনেকেই পার্টনারের নাম ভু’ল বলেন। তাতেই মাটি হয় সমস্ত আ’নন্দ!

১. পরিচ্ছন্ন হওয়া জরুরি৷ গোসল করতে হবে না কিন্তু, সাবান দিয়ে নিজেকে পরিষ্কার করে নিলে ভাল হয়৷ হালকা গরম পানি থাকলে তো আরও ভাল৷

২. পানি খেতে হবে বেশি করে৷ হাত পা ধুয়ে প্রথমেই অনেকটা জল খাবেন৷ তাতে শ’রীর ভাল থাকবে৷

৩. খেয়াল রাখবেন অতিরিক্ত উ’ত্তেজনার ফলে শ’রীরে যদি কোনও অংশে ক্ষ’ত তৈরি হয় তাহলে সেই অংশ ভাল করে কোনও জীবানু নাশক ব্যবহার করতে পারেন৷ স্পর্শকাতর অ’ঙ্গ হলে সেক্ষেত্রে মলম ব্যবহার করুন৷

৪. অনেকটা ক্যালরি খরচ হয়ে যায় স’ঙ্গ’মের ফলে৷ তাই কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিন৷ স’ঙ্গে স’ঙ্গে অন্য কোনও কাজে মন দেবেন না৷ তাতে কাজটা ভাল করে হবে না৷

৫. আপনার স’ঙ্গীর স’ঙ্গে একটু গল্প করতে পারেন৷ এই কথাটি পুরু’ষদের ক্ষেত্রে বেশি প্রযোজ্য৷ কারণ ম’হিলা স’ঙ্গীরা অনেক সময়েই নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন৷ তাই তাঁদের স’ঙ্গে গল্প করুন৷ শেষ পর্যন্ত মনের মি’লনই সব৷

৬. শেষ যে কাজটি অবশ্যই করবেন, ঘর এলোমেলো হলে গুছিয়ে ফেলুন৷ যাতে অন্য কেউ ঘরে এলে আপনাদের অপ্রস্তুত অবস্থান না পড়তে হয়৷ স’ঙ্গ’মের সময় ব্যবহৃত কন্ডোম ইত্যাদি যথাস্থানে ফেলুন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here